ছাত্রলীগের মারধর নিয়ে যা বললেন ভিপি নুর

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম (এসএম) হলে দুই ঘণ্টা অবরুদ্ধ থাকার পর মুক্ত হয়েছেন ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর। আজ মঙ্গলবার বিকেল ৫টার দিকে হলে গেলে তাকে লাঞ্ছিত ও অবরুদ্ধ করে রাখে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। দুই ঘণ্টা পর সন্ধ্যা ৭টার দিকে প্রাধ্যক্ষ হলে গেলে বেরিয়ে আসেন নুর।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন ছাত্রনেতারা। সেখানে ভিপি নুরও উপস্থিত হন।

এ সময় ভিপি নুর বলেন, ‘মেয়েরা-আমাদের বোনরা আমাদের বিপদ শুনে যারা ওখানে (এসএম হল) গিয়েছিলেন, ছাত্র ফেডারেশনের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি বেনজীর, তার মাথা ফাটিয়ে তাকে রক্তাক্ত করা হয়েছে। সে এখন হাসপাতালে। আমাদের হাবিবুল্লাহ বেলালী নামের ছেলেকে হাসপাতালে পাঠিয়েছে এবং শামসুন্নাহার হলের ভিপি ইমিকে মেরেছে। ওখানে যারা মেয়ে ছিল অনেককেই মারধর করা হয়েছে। ছেলেদেরকে বিচ্ছিন্নভাবে মারধর করা হয়েছে।’

ডাকসুর ভিপি বলেন, ‘আর আমরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে যেটা বলেছি যে, এই প্রশাসন সকল কাজ-কর্মে ছাত্রলীগকে তুষ্ট রেখে কাজ-কর্ম করে যাচ্ছে। যে কারণে তারা ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে না। স্পষ্টত প্রত্যেকটি ঘটনার পেছনে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা জড়িত থাকার পরও তারা ব্যবস্থা নিচ্ছে না।’

নুর আরও বলেন, ‘আজকে আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের ভোটে ভিপি হওয়ার পরও… আমি প্রথম যেদিন নির্বাচিত হয়ে টিএসসিতে এসেছি, সেদিন ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা আমার ‍ওপর হামলা করার জন্য লাঠিসোটা নিয়ে সেখানে গিয়েছে। আজকে এসএম হলে হামলার শিকার হয়েছি। এইভাবে আমরা বারবার হামলার শিকার হচ্ছি। তাই আজকে ভিসি মহোদয়, প্রক্টর মহোদয় ইতিমধ্যে খবর পেয়েছেন, আমরা একটা কথাই বলেছি যে, হল থেকে সকল বহিরাগত, অছাত্র, সন্ত্রাসীদের বিতাড়িত করতে হবে। অধৈধ ছাত্রদের হল থেকে আজকে বের করতে হবে এবং আজকে আমরা যারা লাঞ্ছিত হয়েছি বিচার না পাওয়া পর্যন্ত ভিসি সারের বাসভবনের সামনে অবস্থা নিয়েছি এবং থাকব।’

হলের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গতকাল সোমবার দিবাগত রাতে এসএম হলের আবাসিক ছাত্র মো. ফরিদ হাসানকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মারধর করে রক্তাক্ত করেন। ওই ঘটনার জের ধরে আজ বিকেল ৫টার দিকে অন্যান্য ছাত্রনেতাদের নিয়ে এসএম হলে যান ভিপি নুর। এ সময় তাকে লাঞ্ছিত করেন ছাত্রলীগ নেতারা। হল অফিসে নুরের কাছ থেকে মুচলেকা চাওয়ার একটি ভিডিও ফেসবুকে প্রকাশ পেয়েছে।

এসএম হলে শামসুন্নাহার হল সংসদের ভিপি শেখ তাসনিম আফরোজ ইমির শরীরে ছাত্রলীগের নেতারা হাত দিয়েছেন বলে অভিযোগ ওঠে। এ সময় তাদের দিকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ডিম নিক্ষেপ করেন।

সন্ধ্যা ৭টার দিকে অবরুদ্ধ থেকে মুক্ত হয়ে ক্যাম্পাসে ভিপি নুরের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল করেন ছাত্রনেতারা। বের হওয়ার সময় নুরদের ওপর ডিম নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। পরে নুরসহ অন্যরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে হাজির হন। সেখানে তারা অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *