জাহালমের মামলা চলবে; দুদকের আবেদন খারিজ

অনলাইন ডেস্ক : বিনা দোষে তিন বছর জেল খাটা পাটকলশ্রমিক জাহালমের ক্ষতিপূরণ এবং দোষীদের চিহ্নিত করার বিষয়ে রুল শুনানিসহ সব কার্যক্রম স্থগিত চেয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। এর ফলে জাহালমের মামলা হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে শুনানি হতে বাধা নেই।

আজ সোমবার এ আদেশ দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগ।

হাইকোর্টের দেয়া স্বতঃপ্রণোদিত রুলসহ এ–সংক্রান্ত আদেশের বিরুদ্ধে দুদকের করা আবেদন খারিজ করে সোমবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগ এ আদেশ দিয়েছেন।

আদালতে আজ জাহালমের পক্ষে শুনানি করেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট এ এম আমিন উদ্দিন, তার সঙ্গে ছিলেন অমিত দাস গুপ্ত। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে ছিলেন খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে উপস্থিত ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুর্টি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

এক প্রতিক্রিয়ায় গণমাধ্যমকে ব্যারিস্টার আব্দুলাহ আল মাহমুদ বাশার জানান, নিরপরাধ পাটকলশ্রমিক জাহালমের কারাভোগ নিয়ে হাইকোর্টের যে বেঞ্চ স্বপ্রণোদিত রুল জারি করেছিলেন, সেই বেঞ্চেই মামলার কার্যক্রম চলবে।

গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর জাহালমের কারাভোগ নিয়ে গত বছরের ২৮ জানুয়ারি হাইকোর্ট স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে রুলসহ আদেশ দিয়েছিলেন। তাতে কারাগার থেকে মুক্তি মিলেছিল টাঙ্গাইলের জাহালমের। আদালতের আদেশে ৩ ফেব্রুয়ারি রাতে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগার থেকে মুক্তি পান জাহালম।

জাহালমের তিন বছর কারাগারে থাকার ঘটনায় তদন্ত কর্মকর্তাদের গাফিলতি ছিল কি না- তা খতিয়ে দেখতে একটি কমিটি করে দুদক। তবে দুদকের রিপোর্টে বাংলাদেশ ব্যাংকসহ অন্যান্য ব্যাংকের ওপর দায় চাপিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু দুদকের ব্যাখ্যায় সন্তুষ্ট না হয়ে ৩৩টি মামলার প্রাথমিক তথ্য বিবরণী (এফআইআর), অভিযোগপত্রসহ (সিএস) যাবতীয় নথি তলব করেন হাইকোর্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *