ব্রিটিশ হাইকমিশনারকে যা জানালেন ড. কামাল

অনলাইন ডেস্ক : জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি বিশিষ্ট আইনজীবী ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে তার বেইলি রোডের বাসায় সাক্ষাৎ করেছেন ব্রিটিশ হাইকমিশনার অ্যালিসন ব্লেক।

সোমবার সন্ধ্যা ৫টা ৪৫ মিনিটে ড. কামাল হোসেনের বাসায় যান অ্যালিসন ব্লেক। এরপর সন্ধ্যা ৬টা ২৫ মিনিটে তিনি বেরিয়ে যান।

ব্রিটিশ হাইকমিশনারের সঙ্গে কোন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে জানতে চাইলে ড. কামাল হোসেন গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, ‘তারা মাঝেমধ্যে দেখা করতে আসেন। দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিষয়ে তারা জানতে চেয়েছেন। বিশেষ করে আগামী নির্বাচন আমরা কীভাবে দেখছি এবং কী ধরনের নির্বাচন হতে যাচ্ছে, হাইকমিশনার তা জানতে চেয়েছেন।’

জবাবে আমরা বলেছি, ‘আমরা অবাধ ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে একটি অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ এবং গ্রহণযোগ্য নির্বাচন চাই। এখনো আমরা একই দাবিতে অনঢ়। আমরা নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চাইছি। সেই লক্ষ্যে সাত দফা দাবিও দিয়েছি।’

ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘আগে আমাদের নির্বাচনে তত্ত্বাবধায়ক সরকারব্যবস্থা ছিল। তারপর একটি জাজমেন্ট দিয়ে তা সরিয়ে দেয়া হয়। এরপর থেকেই সমস্যা হচ্ছে।’

ব্রিটিশ হাইকমিশনারের কাছে ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে ১৫৪ জন বিনা ভোটে নির্বাচিত হওয়ার বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে জানিয়ে ড. কামাল বলেন, ‘৫ জানুয়ারির পর নির্বাচিত সরকার না থাকার কারণে দেশের অনেক ক্ষতি হয়েছে। তারাই (বর্তমান সরকার) বলেছিল ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর দ্রুততম সময়ের মধ্যে একটি নির্বাচন দেয়া হবে। সেই দ্রুততম সময় পাঁচ বছরে শেষ হয়েছে।’

ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘নিরপেক্ষ সরকার মানেই হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী কোনো ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারবে না। প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী যদি রেফারির ভূমিকা পালন করে, পুলিশ ও প্রশাসন যদি নিরপেক্ষ না থাকে তাহলে তো ফেয়ার ইলেকশন হয় না। আমরা এটাই বলেছি।’

এর আগে গত ১৮ অক্টোবর রাজধানীর একটি হোটেলে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ফ্রান্স, নেদারল্যান্ডস, ইইউভুক্ত দেশগুলোসহ ২০ থেকে ২৫টি দেশের কূটনীতিক ও তাদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

সেদিন জোটের সাত দফা দাবি ও ১১ লক্ষ্য নিয়ে নিজেদের ভাবনার বিষয়টি কূটনীতিকদের সামনে তুলে ধরেন ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল।

অপরদিকে সোমবার দুপুরে যুক্তফ্রন্ট চেয়ারম্যান ও বিকল্পধারার সভাপতি একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বাসায় যান ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা।বৈঠকে আগামী নির্বাচনে ভারতের সাহায্য চেয়েছে বিকল্পধারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *