মেসি জাদুতে রেকর্ড জয়ে শেষ আটে বার্সা

স্পোর্টস ডেস্ক : ফের ম্যাজিসিয়ান রূপে আবির্ভূত লিওনেল মেসি। ম্যাচের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত তার জাদু দেখলে ফুটবলবিশ্ব। নিজে করলেন জোড়া গোল। পাশাপাশি দুই সতীর্থের গোলে করলেন অ্যাসিস্ট। তার আলোয় অন্ধকারে ডুবে গেল ফ্রান্স ক্লাব লিওঁ। চৌদ্দ বছর আগে চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটে কোন স্প্যানিশ ক্লাব ছিল না। এবারও সেই শঙ্কা তৈরি হয়েছিল। এমনিতে শক্তিতে, ঐতিহ্যে বার্সেলোনার বিপক্ষে শঙ্কা সত্যি করার মতো দল লিঁও না। কিন্তু এবার তো চলছে অঘটনের মৌসুম। সেই অঘটনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে ফ্রান্স ক্লাব লিঁওকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বার্সেলোনা। একমাত্র স্প্যানিশ দ হিসেবে উঠে গেছে চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটে।

কাতালানদের হয়ে জোড়া গোল করেন দলের সেরা তারকা মেসি। গোল পেয়েছেন ফর্মে না থাকা কুতিনহো। এছাড়া শেষ সময়ে মাঠে নেমে ইনজুরিতে থাকা ডেম্বেলে গোল করেছেন। তাদের গোলে বড় এই জয় পায় ভালভার্দের দল।

ম্যাচের ১৭ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে দলকে প্রথমে এগিয়ে নেন মেসি। এরপর ৩১ মিনিটে গোল করেন ব্রাজিলিয়ান তারকা কুতিনহো। ওই দুই গোলে প্রথমার্ধ শেষ করে দু’দল। দ্বিতীয়ার্ধের ৫৮ মিনিটে গোল করে ব্যবধান কমায় লিঁও। দেয় অশনিসংকেত। গোল শূন্য ব্যবধানে সমতা করলেই শেষ আটে যাওয়ার সুযোগ ছিল তাদের।

কিন্তু সে রোমাঞ্চ জমতে দিলেন না মেসি-পিকেরা। ম্যাচের ৭৮ মিনিটে গোল করে বার্সাকে ৩-১ গোলের লিড এনে দেন মেসি। তিন মিনিট বাদেই গোল করেন পিকে। তার ছয় মিনিট পরে ম্যাচের ৮৬ মিনিটে গোল দেন ডেম্বেলে। আট মিনিটের ব্যবধানে তিন গোল খেয়ে দিশাহারা হয়ে যায় লিঁওয়ের খেলোয়াড়রা। ফলে বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন আর্নেস্তো ভালভার্দের শিষ্যরা। এ নিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে হোমগ্রাউন্ডে টানা ৩০ ম্যাচ অপরাজিত (২৭ জয়, তিন ড্র) থাকলেন তারা। বিশ্বসেরা ক্লাব ফুটবল প্রতিযোগিতায় যা একটি রেকর্ড।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *