সবাই ভালো থাকবেন- মন্ত্রিসভার শেষ বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক : মন্ত্রিসভা থেকে অনানুষ্ঠানিকভাবে বিদায় নিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী এমনটাই বলেছেন বলে মন্ত্রিসভার একাধিক সদস্য জানিয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন মন্ত্রী জানান, শেখ হাসিনা বলেন, ‘সোমবার আমাদের (মন্ত্রিসভা) শেষ বৈঠক। এরপর মন্ত্রিসভার আর কোনো বৈঠক হবে না। সবাই নিজ নিজ এলাকায় চলে যাবেন নির্বাচনী কাজে। আর দেখা হবে না। আগামীতে জনগণ যাকে ভোট দেবে অর্থাৎ জনগণ কাকে ভোট দেবে এটা তারাই জানেন। পরবর্তীতে নতুন সংসদ হবে, নতুন কেবিনেট হবে, সেখানে কারা আসবে সেটা তো এখনই বলা যায় না, সবাই ভালো থাকবেন। সবাইকে ধন্যবাদ।’

নবম ওয়েজবোর্ডের সুপারিশ
সংবাদপত্র ও বার্তা সংস্থার কর্মীদের বেতন বাড়াতে নবম মজুরি বোর্ড যে সুপারিশ করেছে তা পর্যালোচনায় পাঁচ সদস্যের একটি মন্ত্রিসভা কমিটি করে দিয়েছে সরকার।

সংস্কৃতিমন্ত্রীকে প্রধান করে গঠিত ওই কমিটিতে শিল্পমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, তথ্যমন্ত্রী এবং শ্রমমন্ত্রীকে রাখা হয়েছে। তথ্য মন্ত্রণালয় কমিটিতে সাচিবিক দায়িত্ব পালন করবে।

মন্ত্রিসভার বৈঠকে ‘নবম সংবাদপত্র মজুরি বোর্ড, ২০১৮’ এর সুপারিশ উত্থাপন করা হলে এই কমিটি গঠন করা হয়। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম এসব তথ্য জানান। তিনি জানান, এ বৈঠকই বর্তমান সরকারের মন্ত্রিসভার শেষ বৈঠক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মন্ত্রিসভা থেকে অনানুষ্ঠানিকভাবে বিদায় নিয়েছেন বলে একাধিক মন্ত্রিসভার সদস্য জানিয়েছেন।

নবম ওয়েজ বোর্ডের বিষয়ে শফিউল আলম বলেন, ‘আগামী ২৮ জানুয়ারির মধ্যে নবম বেতন কাঠামোর প্রজ্ঞাপন জারি করতে হবে। সে জন্য মন্ত্রিসভা কমিটিকে ১৮ জানুয়ারির মধ্যে সুপারিশ দিতে বলা হয়েছে। এই কমিটি (মন্ত্রিসভা কমিটি) যেটা চূড়ান্ত করবে সেটাই গেজেট আকারে প্রকাশ করা হবে। যে সুপারিশ এসেছে উনারা তা পর্যালোচনা করবেন।’

পাঁচটি শ্রেণিতে ১৫টি বেতনক্রম নির্ধারণে সুপারিশ করা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, প্রথম তিন গ্রেডে ৮০ শতাংশ এবং শেষের তিন গ্রেডে ৮৫ শতাংশ বেতন বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়া ৬০-৭০ শতাংশ বাড়ি ভাড়া এবং ২০ শতাংশ হারে বৈশাখী ভাতা যুক্ত করা ও মিডিয়ার জন্য ভিন্ন একটি আইন করার সুপারিশ করা হয়েছে। তবে ওয়েজবোর্ড কমিটির সুপারিশের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেননি মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

২০১৩ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর সাংবাদিকদের মূল বেতন ৭৫ শতাংশ বাড়িয়ে অষ্টম মজুরি কাঠামো ঘোষণা করে সরকার, যা ওই বছরের ১১ সেপ্টেম্বর থেকে কার্যকর ধরা হয়।

আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি মো. নিজামুল হককে প্রধান করে গত ২৯ জানুয়ারি ১৩ সদস্যের নবম ওয়েজবোর্ড গঠন করা হয়। এরপর গত ১১ সেপ্টেম্বর সংবাদপত্র ও বার্তা সংস্থার কর্মীদের জন্য মূল বেতনের ৪৫ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা ঘোষণা করে সরকার, যা গত ১ মার্চ থেকে কার্যকর ধরা হয়।

নবম ওয়েজবোর্ডের প্রধান বিচারপতি মো. নিজামুল হক গত ৪ নভেম্বর সচিবালয়ে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুর হাতে তাদের প্রতিবেদন জমা দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *