‘অভিন্ন ৫৪ নদীর পানি বণ্টনে নতুন ফর্মুলা খুঁজছে বাংলাদেশ-ভারত’

অনলাইন ডেস্ক : ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর বলেছেন, এনআরসি (ন্যাশনাল রেজিস্ট্রি অব সিটিজেন্স) ইস্যুটি ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। আজ রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবনে বাংলাদেশ-ভারত পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের দ্বিপক্ষীয় বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ভারত রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসন চায় উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশ-ভারত-মিয়ানমারের স্বার্থে এটি জরুরি। রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনে ভারত সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে।

জয়শঙ্কর বলেন, বাংলাদেশের পাশে রয়েছে ভারত। বাংলাদেশের সব উন্নয়নে সহযোগিতা করে যাবে। সন্ত্রাস দমনেও একসঙ্গে কাজ করবে দুই দেশ।

তিনি বলেন, জাতীয় নাগরিক পুঞ্জী (এনআরসি) ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। ভারতের বিদেশমন্ত্রী বলেন, তিস্তা চুক্তি বিষয়ে নরেন্দ্র মোদি যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তা নিয়ে কাজ করছে ভারত সরকার। যোগাযোগ, জ্বালানি ও বাণিজ্য বৃদ্ধিতে দুই দেশ একসঙ্গে কাজ করবে।

তিস্তার পানি বণ্টন নিয়ে দুই দেশের মধ্যে চুক্তি সম্পন্ন হলেও ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, দুই দেশের মধ্যকার অভিন্ন ৫৪ নদীর পানি বণ্টনের নতুন ফর্মুলা খুঁজছে বাংলাদেশ-ভারত। পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তিতে অভিন্ন নদীর পানি বণ্টন সমস্যার সমাধান করা হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এর আগে সকালে জয়শঙ্কর ধানমন্ডির ৩২ নম্বর সড়কে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে যান। সেখানে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন যমুনায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠক করেন। তার সম্মানে মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন করেছেন আবদুল মোমেন।

জয়শঙ্কর বিকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তিনি সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। রাতে ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাসের দেয়া নৈশভোজে যোগ দেবেন। এস জয়শঙ্কর তিন দিনের সফরে শেষে আগামীকাল সকালে কাঠমান্ডুর উদ্দেশে ঢাকা ছেড়ে যাবেন।

গতকাল রাত নয়টার পর নয়া দিল্লি থেকে তিনি ঢাকা পৌঁছান। পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পাওয়ার পর এটিই তার প্রথম বাংলাদেশ সফর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *