আযান দিয়েও ভোটারদের কেন্দ্রে আনা যাচ্ছে না: রুমিন ফারহানা

অনলাইন ডেস্ক : সরকার ও নির্বাচন কমিশনের সমালেচনা করে বিএনপির সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বলেছেন, এখন আযান দিয়েও ভোটারদের কেন্দ্রে আনা যাচ্ছে না। কারণ সরকার ও নির্বাচন কমিশনের ভূমিকায় সারা দেশে ভোটাররা নির্বাচনের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন। আজ সংসদ অধিবেশনে জরুরি জন গুরুত্বসম্পন্ন বিষয়ে মনোযোগ আকর্ষণনীয় নোটিশের উপর বক্তব্য রাখতে গিয়ে একথা বলেন তিনি।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনে বক্তৃতাকালে তিনি ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সম্পর্কে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ‘আমি ধারণা করছি এই নির্বাচন সুষ্ঠু হবে’ বলে মন্তব্য করায় কঠোর সমালোচনা করেন।

ব্যারিস্টার রুমিন বলেন, নির্বাচন পরিচালনার সকল দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের। এ বিষয়ে একটি দলের সাধারণ সম্পাদক ও মন্ত্রী কিভাবে আশ্বস্থ করেন, সেটা আমার মাথায় আসে না। ভোট সুষ্ঠু করার দায়িত্ব যখন তিনি নিচ্ছেন তার অর্থ কি? সরকারের নিয়ন্ত্রণাধীন দলীয় ক্যাডার ও প্রশাসন সুষ্ঠু নির্বাচনের অন্তরায়। তিনি আরো বলেন, নির্বাচন কমিশনকে সরকারের সাহায্য করা, ঐচ্ছিক কোনো বিষয় নয়।

বরং সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা। সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন কমিশনের সহযোগিতা করা সকল নির্বাহী কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব। রুমিন ফারহানা বলেন, সিটি নির্বাচন নিয়ে সরকারের অবস্থান তিনি (ওবায়দুল কাদের) নিজেই স্পষ্ট করেছেন। বলেছেন, ‘সিটি কর্পোরেশনে হেরে গেলে সরকারের মাথার উপর আকাশ ভেঙ্গে পড়বে না’। এর অর্থ দাঁড়ায়, জাতীয় নির্বাচনে হেরে গেলে মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়ার বিষয় থাকে। তাই সে নির্বাচনে যেনতেন ভাবে জিততে হয়। তিনি আরো বলেন, সরকার সিটি কর্পোরেশনে সুষ্ঠু নির্বাচন দিয়ে সরকার বুঝাতে চায় দেশে গণতন্ত্র আছে। তাই আগামী পহেলা ফেব্রুয়ারি বিএনপির দুই প্রার্থী নির্বাচিত হলে অবাক হওয়ার কিছু নেই। তিনি নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করার দাবি জানান।

Check Also

‘খালেদার প্যারোল নিয়ে ভিন্ন কথা বললেন ফখরুল’

অনলাইন ডেস্ক: আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা …

খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন প্রস্তুত

অনলাইন ডেস্ক : বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন প্রস্তুত। সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) হাইকোর্টে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *