করোনার ‘দ্বিতীয় ঢেউ’ মোকাবিলায় মাঠে রাউজান থানা পুলিশ

এম বেলাল উদ্দিন, রাউজান (চট্টগ্রাম) থেকে: করোনার দ্বিতীয় ঢেউ বা শীতে করোনা মোকাবিলায় সরকার নতুন করে মাস্ক পরার যে নির্দেশনা দিয়েছেন তা পুরোপুরি বাস্তবায়নে মাঠে নেমেছে রাউজান থানা পুলিশ।

রোববার (২২ নভেম্বর) বেলা ১২টা থেকে ঘন্টাব্যাপী জনগণকে মাস্ক বিষয়ক সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে মাইকিং এবং উদ্বুদ্ধকরণ কর্মসূচিসহ মাস্ক পরা কার্যক্রম পরিচালনা করেন রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল হারুন।

রাউজান থানা গেইট সংলগ্ন দোকান ও কাচা বাজার থেকে শুরু করে ফকিরহাট বাজার হয়ে মুন্সিরঘাটা পর্যন্ত কাঁচা বাচার, মুদির দোকান, বিপনী বিতান, ঔষধের দোকানের ব্যবসায়ী, ক্রেতা, ইমাম-মোয়াজ্জীন, ভবঘুরে, রিকশা চালক, পরিবহন শ্রমিক ও চালক, যাত্রী, পথচারীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের মধ্যে যাদের মুখে মাস্ক ছিল না তাদের মাস্ক পরিয়ে দেন রাউজান থানার ওসি আবদুল্লাহ আল হারুন।

কর্মসূচিতে প্রায় ২ শতাধিক জনগণকে মাস্ক পরানো হয়। এই সময় তার সঙ্গে ছিলেন রাউজান থানার পুলিশ পরিদর্শক অলি উল্লাহ, রাউজান থানার উপপরিদর্শক শাহাদাত হোসেন, এ এসআই সুজন চন্দ্রপালসহ রাউজান থানার অন্যান্য পুলিশ সদস্যবৃন্দ।

এই কর্মসূচীতে মাইকিং করে করোনার বিস্তার রোধে সবাইকে বাধ্যতামুলকভাবে মাস্ক পরার আহŸান জানানো হয়। মাস্ক না পরলে আইনে আওতায় আনার হুশিয়ারি উচ্চারণ করে পুলিশ। এ প্রসঙ্গে রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল হারুন বলেন, ‘মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে পারলেও আমরা করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলা করতে পারব। তাই আমরা মাস্ক পড়া কর্মক্রম পরিচালনা করছি। যারা মাস্ক পরেছেন তাদের ধন্যবাদ জানিয়েছি, যারা মাস্ক পরেননি, তাদের মাস্ক পরিয়ে দিয়েছি। আমরা ব্যবসায়ীদের অনুরোধ করেছি, মাস্ক ছাড়া কোন ক্রেতার কাছে যাতে পণ্য বিক্রি না করে এবং পরিবহন চালকদের অনুরোধ করেছি যাতে মাস্ক ছাড়া কোনো যাত্রীকে গাড়িতে না তোলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *