ছেলে ও মেয়েকে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা

বেনাপোল (যশোর) থেকে সংবাদদাতা : যশোরের শার্শা উপজেলায় ছেলে ও মেয়েকে বিষ খাইয়ে হত্যার পর নিজেও বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেছেন মা। গতকাল রোববার রাত আনুমানিক ১১টার দিকে উপজেলার কায়বা ইউনিয়নের চালিতাবাড়ীয়া দীঘা গ্রামে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- মা হামিদা খাতুন (৩৫), কন্যা শরিফা খাতুন (১২) ও শিশুপুত্র সোহান হোসেন (৫)। এই তিনজনই ওই গ্রামের হতদরিদ্র চা দোকানী ইব্রাহিমের স্ত্রী, কন্যা ও শিশু পুত্র।

স্থানীয়রা জানায়, স্বামী ইব্রাহিম হোসেন ও শাশুড়ি জামিলা খাতুন পারিবারিক বিবাদে দিনভর হামিদাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতেন। নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে হামিদা খাতুন বাজার থেকে বিষ ও গ্যাসের ট্যাবলেট এনে প্রথমে মেয়ে শারিফা খাতুন ও ছেলে সোহান হোসেনকে খাইয়ে হত্যা করে। পরে তিনি নিজেও বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেন।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এস আই সুকদেব জানান, ঘটনাস্থল থেকে ৩টি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য যশোর পাঠানো হবে। কি কারণে এ আত্মহত্যা তা তদন্তের পর জানা যাবে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনজনকে আটক করা হয়েছে বলেও জানান এসআই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *