জিম্বাবুয়ে সিরিজই ‘অধিনায়ক মাশরাফি’র শেষ, তবে…

স্পোর্টস রিপোর্টার: জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। আর এতে যথারীতি নেতৃত্ব দেবেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। তবে এটি বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়কের শেষ ম্যাচ বলে জানা গেছে।

ক্যারিয়ারে ২১৭ ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। সেখানে ৮৫ ম্যাচে দিয়েছেন দলের নেতৃত্ব। তাতে ৪৭ ম্যাচেই জিতেছে বাংলাদেশ দল। তাই তাকে দেশের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক বললে ভুল হবে না। কারণ তার আগে এই ফরম্যাটে ১৩ অধিনায়কের কেউই এমন সাফল্য এনে দিতে পারেননি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৯ ম্যাচে জয় অধিনায়ক হাবিবুল বাশারের।

বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজেও অধিনায়ক হিসেবেই খেলবেন মাশরাফি। তবে এরপর মাস দেড়েকের মধ্যে ওয়ানডে দলের নতুন নেতৃত্ব খুঁজে নেবেন তারা। অবসর না নিলে মাশরাফিকে তখন দলে জায়গা পেতে হবে পারফরম্যান্স দিয়ে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘এই সিরিজে মাশরাফি অধিনায়ক হিসেবে খেলছে। যদি সে ফিট থাকে। ফিট না হলে ভিন্ন কথা। অবশ্য ওর জন্য আমরা অতোটা কড়াকড়ি করতে চাইছি না যদি খেলতে চায়। তবে খুব শিগগিরই আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে। সামনে যে বিশ্বকাপটা (২০২৩) আছে সেটার আগ মুহূর্তে হঠাৎ অধিনায়ক আমরা কাউকে করবো না। তার জন্য টিম ও অধিনায়ক আমরা দু’বছর আগেই করে ফেলবো। আমার হাতে আর সময় নেই। খুব শিগগিরই এই সিদ্ধান্ত নিতে হবে।’

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের কথাতেই স্পষ্ট যে জিম্বাবুয়ে সিরিজেই শেষ হচ্ছে মাশরাফি বিন মুর্তজার নেতৃত্বের অধ্যায়। তাই এখন নয়া ওয়ানডে অধিনায়কের অপেক্ষা। কবে নাগাদ এই সিদ্ধান্ত আসবে? বিসিবি সভাপতি সময়টাও বেঁধে দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘এক মাসের মধ্যে আমরা এই ব্যাপারে আপনাদের ক্লিয়ার কাট সিদ্ধান্ত দিয়ে দিতে পারবো। অন্তত এই (জিম্বাবুয়ে) সিরিজটার জন্য আমরা অপেক্ষা করছি। এর পর আমরা সিদ্ধান্ত নিয়ে নেবো।’ তবে মাশরাফি যদি শুধু পেসার হিসেবে খেলা চালিয়ে যেতে চান তাতে কোনো আপত্তি নেই বিসিবি সভাপতির। তবে এই জন্য তাকে অন্য ক্রিকেটারদের মতোই পারফরম্যান্স ও ফিটনেসের প্রমাণ দিয়ে দলে আসতে হবে বলেও স্পষ্ট করেন তিনি। নাজমুল হাসান বলেন, ‘ মাশরাফি খেলতে চাইলে খেলতে পারে। তবে এখন আমি সবচেয়ে বেশি চিন্তিত অধিনায়ক নিয়ে। যদি আমরা কাউকে অধিনায়ক হিসেবে ঘোষণা দিয়ে দেই তারপর ও যদি নিজের পারফরম্যান্সে দলে ঢুকতে পারে ঢুকবে। সেটা তো ভিন্ন ব্যাপার। কারো জন্যই বাধা নেই। তবে অধিনায়কত্বের ব্যাপারে আমরা মাসখানেকের মধ্যে আপনাদের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেবো।’

মাশরাফির অবসর নিয়ে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘কিন্তু এটাও আবার আমরা জানি ওর (মাশরাফি) একটা সময় এসেছে সিদ্ধান্ত নেয়ার যে ও আর কতদিন খেলবে। অবসর…এটা আসলে খেলোয়াড়ের ওপর নির্ভর করে। আমরা যেটা জানি নামিদামি খেলোয়াড় যারা আছেন তারা নিজেরা পরিকল্পনা করে বলে দেয় যে আমি অবসরে যাচ্ছি। এবং সেখানটায় আমাদেরও ইচ্ছে ছিল ও যদি এমন কিছু করে তাকে অনুষ্ঠান করে ভালোভাবে বিদায় দিতে পারি। তবে বাকিটাও ওর ইচ্ছা।’

তবে বিসিবি সভাপতি কঠিন বাস্তবতাও স্বীকার করে নিয়েছেন। মাশরাফির বিকল্প অধিনায়ক পাওয়া যে তাদের জন্য ভীষণ কঠিন তা অকপটেই জানান তিনি। বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘একটা কথা আমি সবসময় বলে এসেছি। সাকিবের মতো খেলোয়াড়ের ও মাশরাফির মতো অধিনায়কের বিকল্প এই মুহূর্তে আমাদের হাতে নেই।’

Check Also

এ বছর থেকে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা, তবে…

অনলাইন ডেস্ক : দেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে কেন্দ্রীয়ভাবে ভর্তি পরীক্ষা নিতে সম্মত …

মল্লিকার কামব্যাক, তবে…

বিনোদন ডেস্ক : অনেক দিন বলিউডের বাইরে রয়েছেন বলিউড অভিনেত্রী মল্লিকা শেরাওয়াত। তবে এবার কামব্যাক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *