ঝালকাঠিতে যুবককে নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন

গাজী মো. গিয়াস উদ্দিন, ঝালকাঠি থেকে: ঝালকাঠিতে সন্ত্রাসী কর্তৃক যুবককে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের প্রতিবাদে এলাকাবাসী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে।
রোববার (২৩ আগস্ট) বিকালে পিপলিতা বাজারে এলাকার শত শত লোক জমায়েত হয়ে দোষীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করে। এসময় তারা ঘটনার বর্ণনা করে উল্লেখিত সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন। মানববন্ধনে বক্তারা প্রধানমন্ত্রী, আমির হোসেন আমু এমপি, ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট সকলের কাছে বিচার দাবি করেন।
উল্লেখ্য, গত ১৪ আগস্ট ঝালকাঠি সদর উপজেলার দক্ষিণ পিপলিতা গ্রামের মহিষকাটা নামক স্থানে রাত ৯টার দিকে অটোড্রাইভার সাইদুল ইসলাম জমাদ্দারকে জমিজমা নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে কয়েকজন সন্ত্রাসী মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করে। তাকে কাটাযুক্ত শিমুল গাছের সাথে রশি দিয়ে হাত-পা বেঁধে রাখে প্রতিপক্ষরা। তাতেও ক্ষ্যান্ত হয়নি সন্ত্রাসীরা। তার চোখ উপড়ে ফেলার চেষ্টা চালালে এলাকাবাসীর প্রতিরোধে তারা ব্যর্থ হয়।
নির্যাতনের শিকার মতিউর রহমান জমাদ্দারের পুত্র অটোরিক্সা চালক মো. সাইদুল ইসলামকে গ্রামবাসির সহায়তায় পুলিশ উদ্ধার করে। ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসাপাতালে ভর্তি করা হলে সাইদুলের অবস্থা অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়।
এলাকাবাসী জানায়, দক্ষিণ পপিলিতা গ্রামের মোতালেব তালুকদারের পুত্র কেওড়া ইউনিয়ন যুবলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদ রানা, আঃ খালেক হাওলাদরের ছেলে মোহাম্মদ সালেহ, শাহেদ আলীর পুত্র আলতাফ ডাকুয়াসহ ১০/১৫ জন সন্ত্রাসী মিলে ঝালকাঠি শহর থেকে অটোরিক্সায় নিজ বাড়িতে ফেরার পথে দক্ষিণ পিপলিতা গ্রামের মহিষকাটা নামক স্থানে আটক করে সাইদুলকে হত্যার উদ্দেশ্যে নির্যাতন করে। এক পর্যায়ে মৃত্যু নিশ্চিত করতে হাত পা বেঁধে কাটাযুক্ত শিমুল গাছের সাথে রাতভর বেঁধে রাখে। পরের দিন সকালে ফজরের নামাজ পড়তে আসা মুসুল্লিরা দেখে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও লোকজনকে নিয়ে তাকে উদ্ধারের চেষ্টা চালালে সন্ত্রাসীরা বাঁধা দেয়। এরপর পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ গিয়ে হাত-পা বাধা সাইদুলকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে পাঠায়। বর্তমানে আহত সাইদুল ঢাকার একটি হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।
এ বিষয়ে স্থানীয় ২নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মো: রাকিব উদ্দিন কেনান জানান, জমিজমা নিয়ে বিরোধের কারণে মাসুদ রানা, মোহাম্মদ সালেহ ও আলতাফ ডাকুয়া গং অটো ড্রাইভার সাইদুল জমাদ্দারকে হত্যার উদ্দেশ্যে নির্মমভাবে হামলা করে মাদার গছের সাথে সারারাত বেধে রাখে। পরদিন আমি খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে সন্ত্রাসীরা আহত সাইদুলকে উদ্ধার করতে আমাকে বাধা দেয়। পরে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে।
এ ব্যপারে ঝালকাঠি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. খলিলুর রহমান জানান, আহত সাইদুলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং সাইদুলের বোনের আবেদনের প্রেক্ষিতে মামলা রুজু হয়েছে এবং আসামিদের গ্রেফতারের জন্য আমাদের অভিযান অব্যাহত আছে।

Check Also

ঝালকাঠিতে মাসুক স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত

গাজী মো. গিয়াস উদ্দিন, ঝালকাঠি থেকে: যুব সমাজকে মাদকের থাবা থেকে ফিরিয়ে আনা এবং খেলাধুলায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *