ঝুলে আছে টাইগারদের লঙ্কা সফর

স্পোর্টস রিপোর্টার: সবকিছু ঠিক থাকলে ২৩শে অক্টোবর বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরুর কথা। তবে সিরিজের প্রায় এক মাস আগে ২৭শে সেপ্টেম্বর টাইগারদের লঙ্কা যাওয়ারও কথা। এসব নিয়ে চলছে চিঠি চালাচালি। কিন্তু একটি বিষয়ে এখনো দুই দেশের বোর্ড সমাধানে আসতে পারেনি- কোয়ারেন্টিন। বাংলাদেশ চাইছে শ্রীলঙ্কা পৌঁছে করোনা পরীক্ষা করে যারা নেগেটিভ হবে তাদের নিয়ে অনুশীলনে নেমে পড়তে। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি) তাতে সায় দিলেও তাদের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে কোনোভাবেই রাজি করাতে পারেনি।

ফলে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকার কঠোর অবস্থানের কথা জানিয়ে বিসিবিকে চিঠি দেয় এসএলসি। এ অবস্থায় সফর নিয়ে তৈরি হয়েছে শঙ্কা।

জানা গেছে, তাদের চিঠির জবাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড আজ আলোচনা করে আরেকটি চিঠি পাঠাবে। তাদের উত্তরের ওপর নির্ভর করে নিশ্চিত হবে এই সিরিজের ভবিষ্যৎ।

বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান বলেন, ‘আমরা কাল (আজ) আলোচনায় বসবো। ওদের চিঠিতে যে যে বিষয়গুলো আছে তা নিয়ে আলোচনা করে আমরা আরেকটি চিঠি পাঠাবো। ওরা উত্তর দিলে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে পরবর্তী করণীয় নিয়ে।’

কয়েকদিন ধরেই শ্রীলঙ্কার কাছে মেডিকেল পরিকল্পনা চেয়ে চিঠি দিচ্ছে বিসিবি। কিন্তু লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড তাদের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দোহাই দিয়ে তা দিতে বিলম্ব করছিল। তাদের আশ্বাসে বিসিবি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজনও জানিয়েছিলেন, ৭ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকার কথা। তবে এরপর লঙ্কান বোর্ডের পক্ষ থেকে চিঠি দিয়ে জানানো হয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনের সিদ্ধান্তেই অটল আছে। এমনকি এই সময়ে পিসিআরে করোনা পরীক্ষা করাতে হবে সব বাংলাদেশি ক্রিকেটারকে। থাকতে হবে হোটেলেই। বিসিবিকে নিজেদের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের গাইডলাইনের বিষয়টি জানিয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের চিফ অপারেটিভ অফিসার অ্যাশলে ডি সিলভা। তিনি বলেন, ‘আমরা আমাদের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের গাইডলাইন বাংলাদেশকে পাঠিয়েছি। তারা সেটি পড়ে আমাদের উত্তর দেবে।’ তার মানে বিসিবি’র জবাবের অপেক্ষায় আছে লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড।

অন্যদিকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন মেনে নিয়ে সফর সম্ভব কিনা তা নিয়ে সরাসরি কোনো উত্তর দিতে রাজি হননি আকরাম খান। তিনি বলেন, ‘আমরা আসলে ওদের চিঠি নিয়ে আলোচনা করবো। যা যা গাইড লাইন দেয়া আছে তা দেখবো। এরপর আমরাও ওদের আমাদের অবস্থাগুলো জানিয়ে উত্তর দেবো। সেখানে অবশ্যই আমাদের কি সুবিধা হবে সেগুলো জানানো হবে আরো একবার। আমরা আমাদের অবস্থানের কথা জানাবোই। আর ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকবো কি না সেটিও সেখানে স্পষ্ট করে জানানো হবে।’ জানা গেছে, শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের এমন টালবাহানায় বেশ বিরক্ত বিসিবি’র কর্তারা। তাই আজকের চিঠির ওপরই হয়তো নিশ্চিত হয়ে যাবে এই সিরিজের ভাগ্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *