তসলিমা নাসরিন বললেন ‘স্লিপ অফ টাং’

অনলাইন ডেস্ক: আলোচিত-সমালোচিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, বাজারে বলাবলি হইতাছে আমি নাকি ভারতের নাগরিকত্ব পাইয়াই যাইতাছি। অর্থমন্ত্রী বলছেন আমি পাইয়া গেছি নাগরিকত্ব। যদিও ভুল কইরা বলছেন। স্লিপ অফ টাং।
বাট কথা হইলো কেমনে আমি পাবো নাগরিকত্ব। পাওয়ার রাস্তা তো দেখতাছি না। দেখতাছি না, কারণ আমি তো এপ্লাইই করি নাই নাগরিকত্বের জন্য। তাইলে কেম্নে কী! বছর বছর আমার রেসিডেন্স পারমিট বাড়াইলেই আমি খুশি। দুই দিনের দুনিয়ায় আমাদের দুই দিনের বসবাস।

কী দরকার নাগরিক হওয়ার।
নাগরিক হইলে সুবিধা কী শুনি! আমি তো বাংলাদেশের নাগরিক, আমারে দেশ থেইক্যা বাইর কইরা দেয় নাই? আমি তো সুইডেনের নাগরিক, ওই দেশে থাকতেই তো আমি পছন্দ করি না। তাইলে?
রেসিডেন্স পারমিট থাকলেও তো ইচ্ছা না হইলে রিসাইড করতে দেয় না সরকার বাহাদুর। আমার তো ছিল রেসিডেন্স পারমিট। ভারতের যে কোনও স্থানে বাস করার অনুমতি ত ছিল। আমারে লাত্থাইয়া ভাগায় নাই কলিকাত্তা থেইকা? ভাগাইছে। ‘ইন্ডিয়া’ থেইকাও ভাগাইছে। শুধু ‘ভারত’ থেইকা ভাগাইতে পারে নাই। কারণ ওইখানে আমার মন পইড়া ছেল।
কী হইব নাগরিকত্ব দিয়া? কিছুই না। আইজ আছি, কাইল নাই। আমার হইল যেইখানে রাইত, সেইখানে কাইত। দুনিয়াডায় এক যাযাবর মুসাফির আমি। মানুষের ভালোবাসাই আমার ঘর বাড়ি। আর কী লাগে এক জীবনে?তিসলিমাস্লিপ অফ টাং
অনলাইন ডেস্ক: আলোচিত-সমালোচিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, বাজারে বলাবলি হইতাছে আমি নাকি ভারতের নাগরিকত্ব পাইয়াই যাইতাছি। অর্থমন্ত্রী বলছেন আমি পাইয়া গেছি নাগরিকত্ব। যদিও ভুল কইরা বলছেন। স্লিপ অফ টাং।
বাট কথা হইলো কেমনে আমি পাবো নাগরিকত্ব। পাওয়ার রাস্তা তো দেখতাছি না। দেখতাছি না, কারণ আমি তো এপ্লাইই করি নাই নাগরিকত্বের জন্য। তাইলে কেম্নে কী! বছর বছর আমার রেসিডেন্স পারমিট বাড়াইলেই আমি খুশি। দুই দিনের দুনিয়ায় আমাদের দুই দিনের বসবাস।

কী দরকার নাগরিক হওয়ার।
নাগরিক হইলে সুবিধা কী শুনি! আমি তো বাংলাদেশের নাগরিক, আমারে দেশ থেইক্যা বাইর কইরা দেয় নাই? আমি তো সুইডেনের নাগরিক, ওই দেশে থাকতেই তো আমি পছন্দ করি না। তাইলে?
রেসিডেন্স পারমিট থাকলেও তো ইচ্ছা না হইলে রিসাইড করতে দেয় না সরকার বাহাদুর। আমার তো ছিল রেসিডেন্স পারমিট। ভারতের যে কোনও স্থানে বাস করার অনুমতি ত ছিল। আমারে লাত্থাইয়া ভাগায় নাই কলিকাত্তা থেইকা? ভাগাইছে। ‘ইন্ডিয়া’ থেইকাও ভাগাইছে। শুধু ‘ভারত’ থেইকা ভাগাইতে পারে নাই। কারণ ওইখানে আমার মন পইড়া ছেল।
কী হইব নাগরিকত্ব দিয়া? কিছুই না। আইজ আছি, কাইল নাই। আমার হইল যেইখানে রাইত, সেইখানে কাইত। দুনিয়াডায় এক যাযাবর মুসাফির আমি। মানুষের ভালোবাসাই আমার ঘর বাড়ি। আর কী লাগে এক জীবনে?

Check Also

‘তসলিমা বাংলায় ব্রাত্য, অচ্ছ্যুত, নিষিদ্ধ’

অনলাইন ডেস্ক : বাংলাদেশে নিজের লেখা বই না বের হওয়ার কারণ জানিয়েছেন আলোচিত ও সমালোচিত …

Taslima Nasrin

কথা বলতে পারছেন না তসলিমা নাসরিন!

অনলাইন ডেস্ক : কথা বলতে পারছেন না বাংলাদেশের নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন। তিনি এখন কোনো …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *