দুই পক্ষের বিরোধে সেচ ব্যবস্থা বন্ধ: চরম বিপাকে কৃষক

শাহ্ আলম শাহী, দিনাজপুর থেকে: পার্বতীপুর উপজেলায় দুই পক্ষের বিরোধে ফসলি জমিতে গভীর দু’টি নলক‚পের পানি সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। ফলে ভরা বোরো মৌসুমে অনাবাদি অবস্থায় পড়ে আছে প্রায় দু শ’ বিঘা ফসলি জমি। বিঘিœত হচ্ছে বোরোসহ অন্যান্য ফসলের চাষাবাদ। এ নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছে এলাকার প্রায় দেড় সহ¯্রাধিক প্রান্তিক কৃষক। সেচ সুবিধা না পাওয়ায় তারা চরম হতাশায় দিন কাটাচ্ছে।
এদিকে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে বলে মন্তব্য করেছে এলাকাবাসী।

পার্বতীপুর উপজেলার মন্মথপুর ইউনিয়নের কৈর্বত্যপাড়া গ্রামে এখন ভরা বোরো মৌসুম। অথচ দিগন্ত জোড়া ফসলের মাঠ অনাবাদি অবস্থায় পড়ে আছে।
ফসলি জমিতে সেচ সুবিধা নিশ্চিতের জন্য ২০০৯ সালে একটি গভীর নলক‚প স্থাপন করেন কৈর্বত্যপাড়া গ্রামের কিশোর। এই নলক‚পের আওতায় ১৭১ বিঘা জমিতে প্রতি বছর সেচ সুবিধা পেলেও এবার তা পাওয়া যাচ্ছে না। ২০১৭ সালে একই গ্রামের গৌরাঙ্গ সরকার ওই গভীর নলক‚পের অদূরে ১৭২০ ফিট পূর্বে আরেকটি নলক‚প স্থাপন করে। কিন্তু গৌরাঙ্গের নলক‚পের পানি সরবরাহে এলাকা বৃদ্ধির জন্য কোনো রকম ঘোষণা না দিয়েই কিশোরের পানি সরবরাহের ড্রেন ভেঙে দেন। নিজের ইচ্ছা মতো আন্ডারগ্রাউন্ড পানি সরবরাহ লাইন তৈরি করেন গৌরাঙ্গ। ফলে কিশোরের গভীর নলক‚প থেকে উত্তোলনকৃত পানি সরবরাহ করতে না পারায় এলাকায় চলতি বোরো মৌসুমের চাষাবাদ বন্ধ হয়ে গেছে। অনাবাদি অবস্থায় পড়ে আছে প্রায় দু শ’ বিঘা ফসলি জমি। সেচ সুবিধা না পাওয়ায় এলাকার কৃষকরা চরম হতাশায় দিন কাটাচ্ছে।
দুই পক্ষের বিরোধের কারণে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছে এলাকাবাসি।
বিষয়টি জেলা সেচ কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলমের নজরেও এসেছে। অতি শিগগিরই এ জটিলতা নিরসন করে বোরো চাষাবাদ নিশ্চিত করার আশা ব্যক্ত করেছেন তিনি।

Check Also

রাজনৈতিক সমঝোতার মাধ্যমে কি খালেদা জিয়া মুক্ত হতে পারেন?

অনলাইন ডেস্ক : সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া প্রায় ১৮ মাস ধরে কারাগারে। আদালতের রায়ে ১৭ …

জামায়াতকে তালাক দিয়ে বিএনপিকে রাস্তায় নামতে বললেন জাফরুল্লাহ

অনলাইন ডেস্ক : গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী জামায়াতকে তালাক দিয়ে বিএনপিকে রাস্তায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *