নাঈমের জোড়া আঘাতে বাংলাদেশে স্বস্তি

স্পোর্টস ডেস্ক: ১৫ বলের ব্যবধানে ২ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশকে ম্যাচে ফেরালেন স্পিনার নাঈম হাসান। ৪৮.১ ওভারে হাফসেঞ্চুরিয়ান প্রিন্স মাসভরেকে ফিরিয়ে ১১১ রানের জুটি ভাঙেন নাঈম হাসান। দলীয় ৭ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর অধিনায়ক ক্রেইগ আরভিন-মাসভেরের জুটিতে ১০০ পার করে জিম্বাবুয়ে। দলীয় ১১৮ রানে নিজের বলে মাসভেরের রিটার্ন ক্যাচ নেন অফস্পিনার নাঈম। ১৫২ বলে ৯ চারে ৬৪ রানের ইনিংস খেলেন এ ওপেনার।এরপর ৫১তম ওভারের চতুর্থ বলে নাঈম সরাসরি বোল্ড করেন অভিজ্ঞ ব্রেন্ডন টেইলরকে। ১১ বলে ১০ রান করেন টেইলর। এই রিপোর্ট লেখা অবধি ৫২.৩ ওভারে সফরকারীদের সংগ্রহ ১৩৬/৩। আরভিন ৫৩ ও সিকান্দার রাজা ০ রানে ক্রিজে আছেন।

শুরুর চার ওভার টানা মেডেন বোলিংয়ে সফরকারী জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানদের চাপে রেখেছিলেন বাংলাদেশের দুই পেসার আবু জায়েদ রাহী ও ইবাদত হোসেন। দলকে বল হাতে প্রথম ব্রেক থ্রু এনে দেন আবু জায়েদ রাহী।
মিরপুর শেরেবাংলা মাঠে ইনিংসের অষ্টম ওভারের শেষ বলে দলীয় মাত্র ৭ রানে কেভিন কাসুজাকে সাজঘরে ফেরান এ টাইগার পেসার। কিন্তু বল হাতে শুরুর দৃঢ়তা ধরে রাখতে ব্যর্থ টাইগাররা। পরের ২২ ওভার নির্বিঘ্নেই ক্রিজে কাটিয়ে দেন জিম্বাবুয়ের অপর ওপেনার প্রিন্স মাসভরে ও অধিনায়ক ক্রেইগ আরভিন। এতে ৮০/১ সংগ্রহ নিয়ে ম্যাচের প্রথম দিনের লাঞ্চে যায় জিম্বাবুয়ে।

মিরপুরে ব্যাক্তিগত ২ রানে রাহীর ডেলিভারিতে নাঈম হাসানের হাতে ক্যাচ দেন জিম্বাবুয়ের ওপেনার কাসুজা। ইনিংসে কাসুজা খেলেন ২৪ বল। এতে ৮ ওভার শেষে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৭/১-এ।

এর আগে বাংলাদেশের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে টসে জিতে ব্যাটিং বেছে নেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক ক্রেইগ আরভিন। মিরপুর শেরেবাংলা মাঠে ম্যাচে দুই পেসার ও দুই স্পিনার নিয়ে একাদশ সাজিয়েছে বাংলাদেশ। দলে রয়েছেন পেসার ইবাদত হোসেন, আবু জায়েদ রাহী, বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম ও অফস্পিনার নাঈম হাসান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *