ফের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ নিয়ে যা বললেন শিক্ষামন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, আমরা সারাদেশের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পর্যবেক্ষণে রেখেছি। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যবেক্ষণে রেখেছে। তবে এখনও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়ার মতো কোনো পরিস্থিতি হয়নি।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমিতে বঙ্গবন্ধু-বাপু ডিজিটাল এক্সিবিউশন অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে এ সব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, মানিকগঞ্জসহ কিছু জায়গায় সংক্রমণের তথ্য আমরা পেয়েছি। আমরা স্কুল প্রধান, সিভিল সার্জন, সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছি। কোথাও যদি খারাপ অবস্থার তথ্য পাই সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেবো এবং ওই প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে এখন পর্যন্ত ওই রকম অবস্থা হয়নি।

তিনি বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে মাঝে মাঝে আমাদের কাছে তথ্য আসে এই প্রতিষ্ঠানে এতজন, ওই প্রতিষ্ঠানে অতজন আক্রান্ত। কিন্তু এখন পর্যন্ত এ জাতীয় কোনো খবরের সত্যতা আমরা পাইনি।

দীপু মনি বলেন, এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষা আশা করছি সময়মতো হবে। নভেম্বর এবং ডিসেম্বরে আমরা তারিখ ঠিক করছি। মধ্য নভেম্বরে এসএসসি এবং ডিসেম্বরের গোড়ায় এইচএসসি পরীক্ষা হবে।

করোনা পরিস্থিতি খারাপ হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হবে বলেও এসময় জানান শিক্ষামন্ত্রী। তবে প্রাক-প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের শিক্ষাক্রম শুরু নিয়ে এখন পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

দেশে করোনা সংক্রমণ বাড়তে শুরু করলে গত বছরের ১৭ মার্চ দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়। ২০২০ সালের মার্চে সংক্রমণ দেখা দেওয়ার ঠিক আগেই এসএসসি পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়েছিল। কিন্তু এইচএসসি পরীক্ষার্থী আটকে যায়।

ছুটির সময় কোনো পাবলিক পরীক্ষা হয়নি। গত বছরের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়ন ফল প্রকাশ করা হয় তাদের এসএসসি ও জেএসসির ফলের গড় করে। কিন্তু চলতি বছরে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হয়নি।

এরই মধ্যে একাধিকবার স্কুল ও কলেজ খোলার দিনক্ষণ নির্ধারণ এবং প্রস্তুতি নেওয়ার কথা বলা হলেও মহামারি পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় তা সম্ভব হয়নি। করোনা সংক্রমণ কমে আসায় সর্বশেষ ১২ সেপ্টেম্বর স্কুল ও কলেজ খোলার সিদ্ধান্ত জানায় সরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *