বাগাতিপাড়ায় শিক্ষার্থীর ব্যাগ থেকে অস্ত্র উদ্ধার; আটক ৭

আশিকুর রহমান, বাগাতিপাড়া (নাটোর) থেকে : নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলায় শিক্ষার্থীর ব্যাগ তল্লাশি করে একটি চাপাতি, একটি ধারালো ছুরি ও অস্ত্র, ধারালো করা র‌্যাত উদ্ধার করেছে পুলিশ। অস্ত্রগুলো বহন ও হামলা চেষ্টার অভিযোগে এসময় ৬ শিক্ষার্থীসহ ৭ জনকে আটক করা হয়েছে।

আটক ৬ শিক্ষার্থী একই উপজেলার মাধববাড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়, চাঁদপুর রফাতুল্ল্যাহ সোনার উচ্চ বিদ্যালয়, হাটগোবিন্দপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও বনপাড়া ডিগ্রী কলেজের শিক্ষার্থী। অপরজন ভ্যান চালক।

বাগাতিপাড়া থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
আটককৃতরা হলো উপজেলার বড়বাড়ি ভাটোপাড়া এলাকার এসকেন মন্ডলের ছেলে আশিকুর (১৬), হাটগোবিন্দপুর এলাকার সাহেব আলীর ছেলে সাব্বির (১৬), একই এলাকার দুলাল সরকারের ছেলে কবির হোসেন (১৫), চাঁদপুর শেখ পাড়া এলাকার মিন্টুর ছেলে আজিম (১৪), শেখপাড়ার শাহজাহানের ছেলে আরিফুল ইসলাম (১৬) হাটগোন্দিপুর এলাকার, আব্দুল মজিদের ছেলে সামিউল বাশির (১৯)। ভ্যান চালক আব্দুর রহমান (২৩) চাঁদপুর এলাকার আহাত আলীর ছেলে।

বাগাতিপাড়া থানার এসআই সাজ্জাদ হোসেন মাধববাড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাসান গাজী ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানান, মাধববাড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে পছন্দ করত একই বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী আজিম। বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হওয়ায় দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী রবিউল ইসলাম আজিমকে নিষেধ করে।
এ নিয়ে রবিউলের সাথে আজিমের বাক-বিতন্ডা হয়। বিষয়টি জানতে পেরে প্রধান শিক্ষক হাসান গাজী উভয়কে ডেকে মিমাংসা করে দেন। কিন্তু ক্ষোভ ভুলতে না পেরে আজিম সোমবার রবিউলকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। বিষয়টি রবিউল প্রধান শিক্ষককে জানানোর পর সোমবার সকাল থেকেই বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা সতর্ক অবস্থানে চতুর্দিকে দৃষ্টি রাখছিলেন।
এরই ধারাবাহিকতায় দুপুর ১টার দিকে বিদ্যালয় সংলগ্ন মোড়ে একটি ভ্যানে বহিরাগত ৬ শিক্ষার্থীকে দেখতে পেয়ে সন্দেহ হলে তাদের চ্যালেঞ্জ করে স্থানীয় অধিবাসী নাজমূল। পরে তাদের ব্যাগ তল্লাশি করে অস্ত্রগুলো দেখতে পায়।
খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজন তাদের ধরে বিদ্যালয় চত্বরে নিয়ে আসে। পরে বাগাতিপাড়া থানার একদল পুলিশ তাদের আটক ও অস্ত্রগুলো জব্দ করে।

বাগাতিপাড়া থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম জানান, রবিউলের ওপর হামলা চালানোর জন্যই আজিম বহিরাগত ওই ৬ শিক্ষার্থীকে নিয়ে আসে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে (আজিম) স্বীকার করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *