বাবা-ছেলে একসঙ্গে পেলেন জিপিএ-৫

ময়মনসিংহ থেকে সংবাদদাতা: এবারের এসএসসি পরীক্ষায় ছেলের সঙ্গে পাস করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন ৪৫ বছর বয়স্ক মো. এখলাস উদ্দিন নয়ন। তিনি ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার ২নং গৌরীপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য। এখলাস উদ্দিন নয়ন পার্শ্ববর্তী কেন্দুয়া উপজেলার মগরাই আদর্শ কারিগরি ইনস্টিটিউট থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে। তার ছেলে মোহাম্মদ রায়হানও (১৭) পেয়েছেন জিপিএ-৫। সে গৌরীপুর টেনকিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী।

এখলাস উদ্দিন নয়নকে শুভেচ্ছা জানিয়ে গৌরীপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান (মহিলা) সালমা আক্তার রুবি বলেন, লেখাপড়ার কোনো বয়স নেই। এখলাস উদ্দিন নয়ন তা প্রমাণ করেছে। এখন তিনি সুন্দর সমাজ গঠনে আরও বেশি ভূমিকা রাখতে পারবেন বলেও আশা করছি।

এ বিষয়ে এখলাস উদ্দিন নয়ন জানান, বয়স হয়ে যাওয়ার কারণে আমার লেখাপড়া করার ইচ্ছা ছিল না। কিন্তু স্ত্রী সমলা বেগমের কারণেই ছেলের সঙ্গে আমাকেও পরীক্ষা দিতে হয়েছে। লেখাপড়ায় আমার চেয়ে তার আগ্রহ বেশি। তিনি আরও বলেন, পরীক্ষা দেয়ার সময় কিছুটা শরম লাগলেও ফলাফল পেয়ে এখন ভালো লাগছে। নিয়ত করেছি ছেলের সঙ্গে আমিও কলেজে ভর্তি হয়ে লেখাপড়া চালিয়ে যাবো।

নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার মগরাইল আদর্শ কারিগরি ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ আব্দুল কাইয়ুম বলেন, এখলাছ উদ্দীন নয়ন আমার প্রতিষ্ঠানের নিয়মিত শিক্ষার্থী। তিনি এ বছর আমার প্রতিষ্ঠান থেকে পরীক্ষা দিয়েছেন। এ বয়সে এসে তার এমন ফলাফলে আমরা গর্বিত।

এ খবরে উচ্ছাস প্রকাশ করে গৌরীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হাসান মারুফ বলেন, খবরটি শুনে ভালো লেগেছে। শিক্ষার কোনো বয়স নাই, শিক্ষা প্রতিটি মানুষের মৌলিক অধিকার। অদম্য এই বাবাকে দেখে সাধারণ মানুষ লেখাপড়ায় আরও অনুপ্রাণিত হবে বলেও মনে করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *