শাহেদের বিরুদ্ধে যত অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার : করোনা ভুয়া রিপোর্ট প্রদান সহ নানা অনিয়মের অভিযোগে রিজেন্ট গ্রুপ ও রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. শাহেদকে গ্রেপ্তার করে ঢাকায় আনা হয়েছে।

বুধবার ভোর ৫টার দিকে সাতক্ষীরা দেবহাটা সীমান্তে নৌকায় পালিয়ে ভারত যাওয়ার সময় ধরা পরে শাহেদ। পরে সাতক্ষীরা স্টেডিয়াম থেকে তাকে বহনকারী হেলিকপ্টার ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেয়।

এর আগে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাবের একটি বিশেষ দল সাতক্ষীরা সীমান্তে ওৎ পেতে বসে থাকে। পরে নৌকায় বোরকা পরা অবস্থায় শাহেদকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় শাহেদের কাছ থেকে গুলি ভর্তি পিস্তল উদ্ধার করা হয়।

শাহেদকে গ্রেপ্তারে দেশের বিভিন্ন জেলায় অভিযান চালায় র‍্যাবের এই বিশেষ দল। অবশেষে সাতক্ষীরা থেকে তাকে গ্রেপ্তারে সক্ষম হয় দলটি।

পাশাপাশি রিজেন্ট হাসপাতালের মালিক মো. শাহেদের দুর্নীতি অনুসন্ধানে স্বাস্থ্য অধিদফতর ও বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে নথিপত্র চেয়ে চিঠি দিয়েছে দুদক।

এদিকে শাহেদের বিরুদ্ধে অভিযোগের যেন অন্ত নেই। চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও অফিস দখলে রাখা, ভাড়া বকেয়া রাখার অভিযোগও তার বিরুদ্ধে রয়েছে। মিরপুর রিজেন্ট হাসপাতালের ভবন মালিক ভাড়া ও অন্যান্য বিলবাবদ প্রায় ৫০ লক্ষ টাকা পাওনা আছে বলে দাবি করেছেন। উত্তরা শাখার ভাড়া বাকি রয়েছে ৮ মাসের। বর্তমানে এই দুইটি শাখাই বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

র‍্যাব নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম বলেন, আমরা শুরুতে ভুয়া টেস্টের বিষয়টিকে সামনে নিয়ে অভিযান পরিচালনা করেছি। কিন্তু এখন যতই দিন যাচ্ছে শাহেদের অপকর্ম সব প্রকাশ পাচ্ছে। বহু ভুক্তভোগী ফোন দিয়ে তার প্রতারণার বর্ণনা তুলে ধরছে।

পুরান ঢাকার এক ব্যবসায়ীর ভাষ্যমতে, শাহেদ পদ্মাসেতুর নাম করে প্রকল্পের জন্য নির্মাণ সামগ্রী নেয়, কিন্তু পরে আর টাকা পরিশোধ করেনি। সিলেটের জৈন্তাপুর থেকে একজন জানান, তার কাছ থেকে বালু এনে সাপ্লাই দিয়ে সে আর টাকা দেয়নি। এছাড়াও আরো নানা কৌশলে বিভিন্ন অফিসে নিয়োগ ও বদলির কথা বলে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে শাহেদ।

এছাড়াও সুন্দরী তরুণীদের ব্যবহার করে কাজ হাতিয়ে নেয়ারও অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। বিভিন্ন স্থানে নারীদের সৌন্দর্যকে পুঁজি করে কাজ বাগিয়ে নেয়ার নজিরও রয়েছে। আবার অনেক সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানদের দিয়ে কাজ করিয়ে বিল পরিশোধ করতেন না এই প্রতারক।

Check Also

শাহেদ গ্রেপ্তার

স্টাফ রিপোর্টার : রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান শাহেদ করিম ওরফে মো. শাহেদকে গ্রেপ্তার করে ঢাকায় আনা হয়েছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *