সবার জন্য পেনশন চালুর উদ্যোগ

অনলাইন ডেস্ক : ২০১৯-২০ অর্থবছরে প্রস্তাবিত বাজেটে সবার জন্য পেনশন ব্যবস্থা চালুর উদ্যোগ গ্রহণের কথা বলা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বাজেট অধিবেশনে এ কথা জানান অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

অর্থমন্ত্রী বলেন, সরকারিপেনশনাররা দেশের সমগ্র জনগণের একটি ভগ্নাংশ মাত্র। প্রাতিষ্ঠানিক ও অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতসহ দেশের সমগ্র জনগণের জন্য সর্বজনীন পেনশন ব্যবস্থা পর্যায়ক্রমে চালু করার লক্ষ্যে একটি ‘ইউনিভার্সাল পেনশন অথরিটি’ শিগগিরই গঠন করা হবে। এতে করে সরকারি চাকরিজীবীদের পাশাপাশি দেশের সাধারণ মানুষের জন্যও পেনশন চালুর পরিকল্পনা হাতে নিচ্ছে সরকার।

অসুস্থতা নিয়েই আজ জাতীয় সংসদে প্রবেশ করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বাজেট উত্থাপন শুরু করার কিছুক্ষণ পর অসুস্থতার কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বাজেট উত্থাপনের অনুরোধ জানান। পরে স্পিকারের অনুমতি নিয়ে বাজেট উত্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ‘পেনশনারদের পেনশন পাওয়ার হয়রানি লাঘবের উদ্দেশে “ইএফটি” এর মাধ্যমে পেনশন প্রদানের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। মাসে মাসে ব্যাংক বা হিসাবরক্ষণ অফিসে হাজিরা ব্যতিরেকে পেনশনারগণ যেন তাদের ব্যাংক বা মোবাইল হিসাবে পেনশন পেতে পারেন, সেই ব্যবস্থা প্রবর্তন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে ২৭ হাজার পেনশনারের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ইএফটি’র মাধ্যমে অর্থ পাঠানো হচ্ছে। আগামী অর্থবছরের মধ্যেই সব পেনশনারকে এই কার্যক্রমের অন্তর্ভুক্ত করা হবে।’

এছাড়া সরকারি কর্মচারীদের জন্য গ্রুপ বীমা আওতার কথাও জানান অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘সরকারি কর্মচারীদের জন্য গ্রুপ ইনস্যুরেন্স নামে একটি ব্যবস্থা থাকলেও এটি প্রকৃতপক্ষে কোনো বীমা নয়। সব কর্মচারীকে বীমার আওতায় আনার লক্ষ্যে প্রচলিত ব্যবস্থার সংস্কার করে জীবন বীমা করপোরেশনের সহযোগিতায় সমন্বিত একটি বীমা ব্যবস্থায় রূপান্তরিত করা হবে।’

‘সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ : সময় এখন আমাদের, সময় এখন বাংলাদেশের’ শিরোনামে প্রস্তাবিত বাজেটের আকার পাঁচ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা। দেশের ৪৮ বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বাজেট এটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *