৪৫ মিনিটের বাজে ক্রিকেটেই বিশ্বকাপ থেকে বিদায়

স্পোর্টস ডেস্ক : বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিট দল বলেই ভারতকে ক্রিকেটপ্রেমীরা জানতো। কিন্তু সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১৮ রানে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় হয়ে গেছে বিরাট কোহলিদের। এদিন ম্যাচের ৪৫ মিনিটের বাজে ক্রিকেট বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে দিয়েছে, বললেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ম্যাচ শেষে কোহলি বলেন, ‘এটা সবসময়ই হতাশজনক, যখন পুরো টুর্নামেন্টে ভাল খেলার পরও মাত্র ৪৫ মিনিটের খারাপ ক্রিকেট আসর থেকে ছিটকে দেয়। তবে নিউজিল্যান্ড এ জয়ের যোগ্য ছিল, ওরা আমাদের বেশ চাপে রেখেছিল। এটা সত্যি কঠিন মেনে নেয়া।’

মঙ্গলবার আসরের প্রথম সেমিফাইনাল শুরু হলেও বৃষ্টির কারণে ম্যাচ গড়ায় দ্বিতীয় দিনে। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২৩৯ রান সংগ্রহ করে নিউজিল্যান্ড। সকলেরই ধারণা ছিল ২৪০ রানের টার্গেট ভারতের কাছে মামুলি ব্যাপার। কিন্তু জবাবে ব্যাট করতে নেমে স্কোর বোর্ডে ২৪ রান যোগ করতেই ৪ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় ভারত।

এর আগে দুর্দান্ত বোলিংয়ে নিউজিল্যান্ডকে চাপে রেখেছিল বুমরাহ, ভুবেনশ্বর কুমাররা। ভারতীয় বোলারদের দুর্দান্ত সুইং, বাউন্সার সামলাতে হিমশিম খেতে হয়েছে কেন উইলিয়ামসনের দলের। এনিয়ে কোহলি বলেন, ‘প্রথম ইনিংসে আমরা ভালো খেলেছি। বোলিং আর ফিল্ডিংয়ে আমরা দারুণ করেছি। আমরা নিউজিল্যান্ডকে এমন স্কোরে আটকে দিয়েছি, তা যেকোনো উইকেটেই তাড়া করা সম্ভব ছিল। কিন্তু যখন নিউজিল্যান্ড বোলিংয়ে এলো প্রথম আধ ঘন্টাতেই ব্যবধান গড়ে দিলো’

কিউই বোলারদের সুইয়ে নাস্তানাবুদ হয়েছে ভারতের সেরা ব্যাটিং লাইনআপ। তবে ভারতের ব্যাটিং বিপর্যয়ের দিন ব্যাট হাতে দুর্দান্ত ছিলেন রবীন্দ্র জাদেজা। ৫৯ বলে ৭৭ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। ভারতের সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি ও জাদেজার ব্যাটিংই ভারতীয়দের স্বপ্ন দেখাচ্ছিল। এই যুগল মিলে ১১৬ রানের জুটি গড়েন।

নিউজিল্যান্ডের বোলিং নিয়ে কোহলি বলেন, ‘নিউজিল্যান্ডের বোলারদের প্রশংসা করতে হয়ে। ওরা নতুন বলে দুর্দান্ত বোলিং করেছে। তারা সঠিক জায়গায় বল ফেলেছে এবং দারুণ সব সুইং করেছে।’

জাদেজার ব্যাটিং নিয়ে কোহলি বলেন, ‘জাদেজা দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছে। জাদেজা যেভাবে ব্যাটিং করেছে তা অসাধারণ, সে তার দক্ষতা দেখিয়েছে যে, দলের প্রয়োজনে সে কি করতে পারে। ধোনির সঙ্গে একটা ভালো জুটি গড়েছিল।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *